ঈদের ১০ দিন আগ থেকে রাস্তা নির্মাণ বন্ধ
ঈদের ১০ দিন আগ থেকে রাস্তা নির্মাণ বন্ধ
২০১৬-০৬-০৬ ০০:০৭:৩৭
প্রিন্টঅ-অ+


চলাচলে যাতে ভোগান্তি না হয় সেজন্য রোজার ঈদের অন্তত ১০ দিন আগ থেকে দেশের শহরগুলোতে রাস্তাঘাট নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে সরকার।

সব সিটি করপোরেশনের মেয়রদের নিয়ে রোববার সচিবালয়ে এক সভায় স্থানীয় সরকারমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন এই নির্দেশ দেন।

রোজায় ভেজালমুক্ত খাবার নিশ্চিতে বাজার তদারকি ছাড়াও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা এবং পানি ও বিদ্যুৎ সরবরাহ ঠিক রাখতেও সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন তিনি।

সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে সভায় বিভিন্ন সিটি করপোরেশনের মেয়র, ভারপ্রাপ্ত মেয়র ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তারা রোজা সামনে রেখে তাদের প্রস্তুতির কথা জানান।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় ম্যাজিস্ট্রেট স্বল্পতার কথা উঠে আসে বেশ কয়েকটি সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তাদের কথায়।

সবার বক্তব্য শুনে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত ইট, রড, সুড়কি ও অন্যান্য নির্মাণ সামগ্রী রাস্তায় না রাখার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। নির্মাণ কাজ ও বৃষ্টিতে সৃষ্ট রাস্তার গর্ত ও নর্দমা বন্ধ করতে হবে।

“নগর এলাকার রাস্তাঘাটের নির্মাণ কাজ ঈদের অন্তত ১০ দিন আগ থেকে বন্ধ রাখতে হবে, যাতে জনসাধারণের চলাচল নির্বিঘ্ন হয়।”

নগরীর রাস্তায় জলাবদ্ধতা নিরসনে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া, রোজায় নাগরিকদের সুপেয় ও ব্যবহারের পানি প্রাপ্তি নিশ্চিত এবং সিটি করপোরেশন নির্ধারিত দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল রাখতে বাজার তদারকিসহ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা অব্যাহত রাখার নির্দেশ দেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মোশাররফ।

ঢাকার মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার নির্মাণ কাজের জন্য রাস্তায় যেসব প্রতিবন্ধকতা রয়েছে সেগুলো দ্রুত অপসারণ, নগরির ডাস্টবিন ও রাস্তাঘাট পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা এবং ফুটপাতে জনগণের চলাচল নির্বিঘ্ন রাখতে অবৈধ দখলদার উচ্ছেদেও সিটি করপোরেশন কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেওয়া হয়।

ইফতারির দোকান ও হোটেল-রেস্তোরাঁয় পচা-বাসী, বিষাক্ত রাসায়নিক ও রংযুক্ত এবং ভেজাল খাদ্য বিক্রি রোধে তদারকি ও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার নির্দেশনা দেন স্থানীয় সরকার সচিব আবদুল মালেক।

রোজায় খাদ্যপণ্যে ফরমালিন ঠেকাতে ফলমূলের দোকান, সবজি ও মাছের বাজারেও তদারকি এবং ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার কথা বলেন তিনি।

রমজান মাসের ‘পবিত্রতা রক্ষায়’ প্রকাশ্যে পানাহার বন্ধে উদ্বুদ্ধকরণ ও সচেতনতামূলক কার্যক্রম নেওয়ার তাগিদ দেন স্থানীয় সরকার সচিব।

‘টাউটারি’ ছাড়া ফরমালিন আর কোন কাজে লাগে- প্রশ্ন তুলে মন্ত্রী মোশাররফ বলেন, “ফরমালিনকে রেস্ট্রিকটেড আইটেম করতে বাণিজ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলব।”

তিনি বলেন, “রজমানের পবিত্রতা রক্ষা সামাজিক, নৈতিক ও ধর্মীয় কাজ। এখানে কোনো রকম শিথিলতার সুযোগ নাই। রোজার পানির সরবরাহ ঠিক রাখার পাশাপাশি ইফতার ও সেহরিতে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলব।”

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বেয়াই মোশাররফ বলেন, “সেবা দেওয়া আমাদের দায়িত্ব, এই দায়িত্ব এড়ানোর শক্তি আমাদের নেই।”

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন, নারায়ণগঞ্জের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী, রংপুরের মেয়র শরফুদ্দিন আহমদ ঝন্টু, বরিশালের মেয়র আহসান হাবীব কামাল এবং অন্য সিটি করপোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র ও এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তারা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বদেশ এর অারো খবর