৪২ বিড়ালের পেইন্টিং এর দাম সাড়ে আট লাখ মার্কিন ডলার !
৪২ বিড়ালের পেইন্টিং এর দাম সাড়ে আট লাখ মার্কিন ডলার !
সংগীতা ঘোষ
২০১৫-১১-১৫ ১৩:২৩:৪৩
প্রিন্টঅ-অ+


১৮৯১ সালে আঁকা কার্ল কাহলারের বিখ্যাত পেইন্টিং মাই ওয়াইফ’স লাভার গত ৩ নভেম্বর বিক্রি হয়েছে। ১৯ শতকের ইউরোপিয়ান এই চিত্রকর্মটির সম্ভাব্য মূল্য ধরা হয়েছিল তিন লাখ ডলার। কিন্তু এরচেয়ে দুই গুণ বেশি দামে, অর্থা‍ৎ আট লাখ ২৬ হাজার মার্কিন ডলারে বিক্রি হয়েছে পেইন্টিংটি।

১৯৪৯ সালে ক্যাট ম্যাগাজিন এই ছবিটিকে বিড়ালের সেরা পেইন্টিং বলে উল্লেখ করে।

ছয় ফুট দৈর্ঘের সাড়ে আট ফুট চওড়া পেইন্টিংটির ওজন দুইশ’ ২৭ পাউন্ড। ছবিতে রয়েছে মোট ৪২টি বিড়াল।

ছবিটির ক্রেতা যে-ই হোক না কেন, সমজেই অনুমান করা যাচ্ছে তার মধ্যেও বিড়ালপ্রীতির কমতি নেই। ছবির দামের হিসেবে ৪২টি বিড়ালের এক একটির দাম পড়েছে ১৯ হাজার ছয়শ’ ৬৬ মার্কিন ডলার করে।

মূলত একটি বাস্তব ছবিকেই তুলির আঁচড়ে রাঙিয়েছেন কাহলার। বিড়ালগুলোর মালিক সান ফ্রান্সিসকোর ধনকুবের কেট বার্ডসল জনসন। তার মোট তিনশ’ ৫০টি বিড়াল ছিল। জনসন তার বিশাল বিড়াল বাহিনী নিয়ে ক্যালিফোর্নিয়ার সনোমায় তিন হাজার একর জায়গায় নিজের খামারে থাকতেন।

একবার তিনি ভাবলেন নিজের প্রিয় বিড়ালদের একটি সুন্দর ছবি আঁকাবেন। দায়িত্ব দিলেন ঘোড়া দৌড়ের দৃশ্য আঁকায় বিখ্যাত কাহলারকে। সময়টাও ছিল ধরাবাঁধা। কিন্তু কাহলার ঘোড়া দৌড়ের দৃশ্য আঁকায় বিখ্যাত হলেও কখনোই আগে বিড়াল আঁকেন নি।

যেহেতু আগে কখনো বিড়াল আঁকেননি, কাহলার বিড়ালগুলোর স্বতন্ত্র চরিত্র বোঝার জন্য প্রতিটি বিড়ালের বেশ কয়েকটি আলাদা আলাদা স্কেচ তৈরি করলেন। এবং প্রায় তিন বছর সময় ব্যয়ে ছবিটি এঁকে শেষ করলেন। নামকরণ করেছিলেন জনসনের স্বামী।

তথ্যসূত্র: ইন্টারনেট

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিচিত্রিতা এর অারো খবর