নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত, ৪ নম্বর সংকেত
নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত, ৪ নম্বর সংকেত
২০১৬-০৫-২০ ০২:০৬:০৫
প্রিন্টঅ-অ+


বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট গভীর নিম্নচাপটি ঘনীভূত হয়ে ঘূর্ণিঝড়ের রূপ নিয়েছে।

এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সাগর তীরের আট দেশের আবহাওয়া অধিদপ্তর ও বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থার দায়িত্বপ্রাপ্ত প্যানেলের তালিকা অনুযায়ী এ ঘূর্ণিঝড়ের নাম দেওয়া হয়েছে ‘রোয়ানু’। মালদ্বীপ নামটি প্রস্তাব করে।

পশ্চিম-মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকা থেকে গভীর নিম্নচাপটি আরো উত্তর দিকে অগ্রসর ও ঘনীভূত হয়ে ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নেয়। এটি আরো ঘনীভূত হয়ে উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হতে পারে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে আবহাওয়ার বিশেষ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

গভীর নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হওয়ায় সাগর উত্তাল রয়েছে। দেশের সমুদ্র বন্দরগুলোতে বিশেষ করে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ২ নম্বর সতর্কতা সংকেতের স্থলে এখন ৪ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

চট্টগ্রামের পতেঙ্গাস্থ আবহাওয়া দপ্তরের সর্বশেষ তথ্যে জানা গেছে, নিম্নচাপ কেন্দ্রের আশপাশের এলাকায় সাগর উত্তাল রয়েছে। চট্টগাম বন্দরের পাশাপাশি কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকেও ৪ নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

চট্টগ্রামের পতেঙ্গাস্থ আবহাওয়া দপ্তরের সহকারী আবহাওয়াবিদ শেখ হাসানুর রশিদ রাইজিংবিডিকে জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১৩৬৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১৩৩৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, মংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১১৮৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ১২১৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল ঘূর্ণিঝড়টি। এটি আরো ঘনীভূত হয়ে উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হচ্ছে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৫৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ৬২ কিলোমিটার, যা দমকা ও ঝড়ো হাওয়ার আকারে ৮৮ কিলোমিটার পর্যন্ত বাড়ছে। রোয়ানুর প্রভাবে চট্টগ্রামে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই বৃষ্টিপাত হচ্ছে।

দুই দফা তাপপ্রবাহের পর সাগরে নিম্নচাপের সৃষ্টি হয়েছে। সৃষ্ট নিম্নচাপ ঘনীভূত হয়ে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে বলে জানান আবহাওয়াবিদরা।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

পরিবেশ এর অারো খবর