রাজধানীতে আবারও এটিএম জালিয়াতি, চীনা নাগরিক আটক
রাজধানীতে আবারও এটিএম জালিয়াতি, চীনা নাগরিক আটক
২০১৬-০৫-১৯ ১১:৫২:২৫
প্রিন্টঅ-অ+


রাজধানীতে আবারও এটিএম জালিয়াতির ঘটনা ঘটেছে। প্রাইম ব্যাংকের তিনটি বুথ থেকে মাস্টার কার্ড ব্যবহার করে তুলে নেওয়া হয়েছে পৌনে ছয় লাখ টাকা। এর মধ্যে এলিফ্যান্ট রোডের বুথ থেকে টাকা উত্তোলনের সময় এক চীনা নাগরিককে আটক করেছে র‌্যাব। হোয়াং হো (৩৭) নামের ওই ব্যক্তিকে এখন জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তাঁর কাছে দুটি কার্ড পাওয়া যায়।

প্রাইম ব্যাংক কর্তৃপক্ষ বলছে, তাদের তিনটি বুথে সকাল ৬টা ১৬ মিনিট থেকে ৬টা ২৫ এর মধ্যে হানা দেয় জালিয়াতচক্রটি। ধারণা করা হচ্ছে এরা সবাই বিদেশি নাগরিক।

প্রাইম ব্যাংকের জনসংযোগ প্রধান ও ভাইস প্রেসিডেন্ট মনিরুজ্জামান বলেন, ফার্মগেট বুথ থেকে চারটি কার্ডের মাধ্যমে ১৩টি লেনদেনে হাতিয়ে নেওয়া হয়েছে এক লাখ ৯৯ হাজার টাকা। পান্থপথ বুথ থেকে পাঁচটি কার্ডে ১৬টি লেনদেনে তুলে নেওয়া হয় তিন লাখ ১০ হাজার টাকা। আর এলিফ্যান্ট রোডের বুথটিতে দুটি কার্ডে পাঁচটি লেনদেনের মাধ্যমে ৬৬ হাজার টাকা উত্তোলন করা হয়।

তিনি আরো বলেন, ‘মাস্টার কার্ডগুলো কোন গ্রাহকের তা জানা সম্ভব হয়নি। এটা বলতে পারবে কার্ড ইস্যুকারী ব্যাংক। এই কার্ডগুলো আমাদের ব্যাংকের ইস্যু করা নয়। তবে আমরা মাস্টার কার্ডের সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। তারা জানিয়েছে, প্রতারিত গ্রাহকদের টাকা ফেরত দিয়ে দেওয়া হবে।’

ব্যাংকের আরেক কর্মকর্তা বলেন, জালিয়াতির কাজে ব্যবহার করা হয়েছে একাধিক মাস্টার কার্ড। কার্ডগুলো বিদেশি নাগরিকদের। কোনোভাবে জালিয়াতচক্রটি তাদের কার্ডের গোপন তথ্য পেয়ে গেছে এবং কার্ড ক্লোন করে টাকা তুলে নিয়েছে।

পুলিশের রমনা ডিভিশনের উপকমিশনার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন জানান, বুধবার সোয়া ৬টার দিকে চীনা নাগরিক হোয়াং হো এলিফ্যান্ট রোডে প্রাইম ব্যাংকের একটি এটিএম বুথ থেকে ৬৬ হাজার টাকা উত্তোলন করেন। এই সময় বুথের নিরাপত্তায় থাকা এক কর্মীর সন্দেহ হয়। তখন ওই চীনা নাগরিক তাঁকে টাকা সাধেন। তবে নিরাপত্তা কর্মী টাকা না নিয়ে ব্যাংকে খবর দেন। এরপর ব্যাংক খবর দেয় র‌্যাব-২ কে। পরে র‌্যাব এসে তাঁকে সাড়ে ১০টার দিকে আটক করে নিয়ে যায়। আটক চীনা নাগরিককে জিজ্ঞাসাবাদ করছে তারা।

র‌্যাব-২-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল মহিউদ্দিন জানান, ওই চীনা নাগরিক দুটি কার্ড ব্যবহার করে পাঁচবারে ৬৬ হাজার টাকা তুলেছেন। কার্ড দুটি তাঁরা জব্দ করেছেন। উদ্ধার হওয়া কার্ডগুলো প্রাইম ব্যাংকের নয়। দুটি ইন্টারন্যাশনাল ব্যাংকের কার্ড দিয়ে ওই টাকা তোলেন হোয়াং হো।

তিনি আরো জানান, জব্দ করা দুটি কার্ডের মধ্যে একটি যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাংকের ইস্যু করা। ব্যবসার কথা বলে গত ১৫ মে হোয়াং হো চীন থেকে বাংলাদেশে আসেন। তিনি উত্তরার একটি বাসায় উঠেছেন। তিনি কোনো ধরনের ডিভাইস ব্যবহার করেছেন কি না তাও তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

অর্থনীতি এর অারো খবর