বৈশ্বিক চিপ সরবরাহের ১০% হবে ভারতে
বৈশ্বিক চিপ সরবরাহের ১০% হবে ভারতে
২০১৬-০৫-১৬ ১৮:৪৪:০২
প্রিন্টঅ-অ+


চলতি বছর চিপের বৈশ্বিক সরবরাহের ১০ শতাংশ ভারতে হবে বলে প্রত্যাশা স্মার্টফোনের চিপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মিডিয়াটেকের। দেশটিতে হ্যান্ডসেটের চাহিদা ক্রমেই বাড়ছে। তাই স্মার্টফোন উত্পাদনও বাড়াতে হচ্ছে। সেই সুবাদে বাড়বে চিপর আমদানি। খবর পিটিআই।

তাইওয়ানিজ প্রতিষ্ঠানটির তৈরি চিপ ব্যবহার করে থাকে মাইক্রোম্যাক্স, লাভার মতো প্রতিষ্ঠানগুলো। স্মার্টফোন উত্পাদকরা আসছে মাসগুলোয় ফোরজি ভয়েস-ওভার-এলটিইসংবলিত ২৫টি মডেল বাজারে উন্মোচন করবে।

মিডিয়াটেকের উদীয়মান বাজারের বিপণন প্রধান ও জ্যেষ্ঠ পরিচালক আর্থার ওয়াং বলেন, প্রবৃদ্ধির গল্পে ভারত খুবই গুরুত্বপূর্ণ অংশ। গত বছর বিশ্বজুড়ে আমরা ৪০ কোটি চিপসেট সরবরাহ করেছি। এর মধ্যে ৩ কোটি ৩০ লাখ গেছে ভারতে। দেশটিতে ফোরজি এলটিই নেটওয়ার্ক ব্যবহারের পরিসর বাড়ছে। তাই এবার ভারতে চিপসেট সরবরাহের হার ১০ শতাংশ ছাড়ানোর সম্ভাবনা রয়েছে। তিনি আরো বলেন, গত বছর মিডিয়াটেক ১৬ কোটি এলটিই চিপসেট সরবরাহ করেছে। এ সংখ্যা ২০১৪ সালের চেয়ে ৪ কোটি বেশি।

বিশ্বে স্মার্টফোনের দ্রুত বর্ধনশীল বাজার ভারত। গবেষণা প্রতিষ্ঠান কাউন্টারপয়েন্টের প্রতিবেদন অনুযায়ী, দেশটিতে স্মার্টফোনের বাজার চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) বেড়েছে ২৩ শতাংশ। এর মধ্য দিয়ে হ্যান্ডসেট ব্যবহারে যুক্তরাষ্ট্রকে ছাড়িয়ে দ্বিতীয়তে পৌঁছল ভারত। তবে এ সময় বিশ্বজুড়ে স্মার্টফোনের বাজার ছিল মন্দায়।

আর্থার ওয়াংয়ের তথ্য অনুযায়ী, ভারতে ফোরজি হ্যান্ডসেট বিক্রি বাড়তে শুরু করেছে। সেই সুবাদে মাইক্রোম্যাক্স, লাভা, কার্বনের মতো ভারতীয় কোম্পানিগুলোর সঙ্গে কাজের সুযোগ বেড়েছে। চীনের লেনোভোও ভারতে সেলফোন উত্পাদন কার্যক্রম শুরু করেছে। তাই এ কোম্পানির সঙ্গেও কাজ করছে মিডিয়াটেক।

শুধু ভারত নয়, চীনে আধিপত্য বিস্তারের পরিকল্পনা রয়েছে মিডিয়াটেকের। চীনভিত্তিক অপ্পো, ভিভোর মতো স্মার্টফোন উত্পাদকরা চলতি প্রান্তিকে (এপ্রিল-জুন) প্রতিষ্ঠানটির রাজস্ব বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখবে।

সেমিকন্ডাক্টর-বিষয়ক ওয়েবসাইট ডিজিটটাইমসের প্রতিবেদন বলছে, চলতি বছর অপ্পো, ভিভো, জিওনির বৈশ্বিক স্মার্টফোন সরবরাহ বাড়বে ৩০ শতাংশ। তাই মিডিয়াটেকের চিপসেটস অন্য উপাদানের চাহিদাও দেশটিতে বাড়বে। এতে আরো বলা হয়, গত প্রান্তিকে মিডিয়াটেকের রাজস্ব ছিল ৭১ কোটি ৯ লাখ ডলার। এপ্রিল-জুন সময়ে তা আরো ৩০ শতাংশ বাড়বে বলে আশা ডিজিটটাইমসের।

মিডিয়াটেক শুধু স্মার্টফোন নয়, ব্যবসার পরিসর বাড়াতেও নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে। সম্প্রতি বিনিয়োগ করেছে মিরাভিশনে। স্মার্টফোনে ডিজিটাল টিভির মতো মাল্টিমিডিয়া ফিচার চালুই এর লক্ষ্য। হেলিও সিরিজের চিপসেট ব্যবহার হবে এ প্রযুক্তিতে। এর মূল ফিচারগুলোর মধ্যে স্মার্টস্ক্রিন, আল্ট্রা ডিমিং ও ব্লুলাইট ডিফেন্ডার উল্লেখযোগ্য।

ওয়াং আরো জানান, আগামী মাসগুলোয় ভয়েস-ওভার-এলটিই সুবিধাযুক্ত ২৫টির বেশি মডেল আনবে ভারতের ১০ হ্যান্ডসেট নির্মাতা প্রতিষ্ঠান। ফোরজি এলটিই নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ভয়েস কল করার প্রক্রিয়াই হচ্ছে ভয়েস-ওভার-এলটিই। এখন টুজি, থ্রিজি নেটওয়ার্কে এ সুবিধা পাওয়া যায়। মিডিয়াটেককে বাজার দখলেও হতে হচ্ছে প্রতিযোগিতার সম্মুখীন। মার্কিন প্রতিষ্ঠান কোয়ালকম ও ইন্টেলও স্মার্টফোন চিপসেট ব্যবসা নিয়ে এগিয়ে চলেছে। তাই মিডিয়াটেককে ভারতের বাজার দখলে গুরুত্ব দিতেই হচ্ছে। ভারতে পরীক্ষামূলকভাবে চিপসেট চালু করেছে প্রতিষ্ঠানটি। রিলায়েন্স জিও এক্ষেত্রে কাজ করছে। চলতি বছরের শেষ নাগাদ কোম্পানি দ্রুতগতিসম্পন্ন ইন্টারনেট সেবা (ফোরজি) চালু করতে পারে। এখন দেশটিতে ভারতী এয়ারটেল, ভোডাফোন ও আইডিয়া সেলুলারের ফোরজি সেবা চালু আছে।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিদেশ এর অারো খবর