জনপ্রিয়তার শীর্ষে গুগলের ক্রোম ব্রাউজার
জনপ্রিয়তার শীর্ষে গুগলের ক্রোম ব্রাউজার
২০১৬-০৫-০৪ ০৩:০৩:২২
প্রিন্টঅ-অ+


ব্রাউজার হিসেবে কোনটা জনপ্রিয়— গুগলের ক্রোম, নাকি মাইক্রোসফটের ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার? এ লড়াইয়ে বেশির ভাগ সময় এগিয়ে থাকে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার। কিন্তু এপ্রিলে এমনটা হয়নি। এ সময় জনপ্রিয়তার শীর্ষ স্পর্শ করেছে গুগলের ক্রোম।

ওয়েব ট্র্যাকিং ওয়েবসাইট নেট মার্কেট শেয়ার ও স্ট্যাট কাউন্টার এমনটিই জানিয়েছে। নেট মার্কেট শেয়ারের তথ্য অনুযায়ী, গত মাসে ডেস্কটপ ব্রাউজারের ৪১ দশমিক ৬ শতাংশ দখলে ছিল ক্রোমের। এ হার মার্চের তুলনায় ২ দশমিক ৬ শতাংশ বেশি। মার্চে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ওয়েব ব্রাউজারের ৪৩ দশমিক ৪ শতাংশ দখলে রাখতে পারলেও এপ্রিলে তা নেমেছে ৪১ দশমিক ৩ শতাংশে। বিশ্বের বিভিন্ন ইন্টারনেট ট্রাফিক বিবেচনার ভিত্তিতে এ গবেষণা পরিচালনা করেছে নেট মার্কেট শেয়ার। তৃতীয় স্থানে রয়েছে ফায়ারফক্স। ডেস্কটপে এ ওয়েব ব্রাউজারের দখল ছিল ৯ দশমিক ৭৬ শতাংশ। এর পর চতুর্থ, পঞ্চম ও ষষ্ঠ অবস্থানে থাকা সাফারি, অপেরা ও কনকুয়েররের বাজার দখল ছিল যথাক্রমে ৪ দশমিক ৯১, ১ দশমিক ৮৯ ও দশমিক ০১ শতাংশ। গত বছরের জুন থেকে ফায়ারফক্সের জনপ্রিয়তা একটি নির্দিষ্ট স্তরে আবদ্ধ রয়েছে। কিন্তু ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের জনপ্রিয়তা কমেছে ধীরগতিতে।

গত বছরের জুনে ডেস্কটপ ব্রাউজার বাজারের অর্ধেক দখলে ছিল মাইক্রোসফটের। কিন্তু এর পর আর ব্যবহারের পরিসর বাড়াতে সক্ষম হয়নি এটি। ১৯৯৬ সালে ওয়েব ব্রাউজার বাজারের ৯৬ শতাংশ ছিল মাইক্রোসফটের দখলে। এর মাত্র দুই বছর পর প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে দেখা যায় আলটা ভিস্তা ও ইয়াহুকে। ১৯৯৮ সালের শেষ থেকে ১৯৯৯ সালের প্রথম দিকে সবচেয়ে জনপ্রিয় ওয়েব ব্রাউজার হিসেবে শোনা যায় ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের নাম।

অনেকেই ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের এ অবনমনে খানিকটা আশ্চর্য। কারণ উইন্ডোজ ডেস্কটপে ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার থাকে স্বাভাবিকভাবে। আর ক্রোম ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে হয়। এটিকেই অনেক বিশ্লেষক ক্রোমের বাজার খলের কারণ করে অভিহিত করছেন। কিন্তু বর্তমান অবনমন নিয়ে কোনো কথা বলছেন না। এদিকে গুগলের বিরুদ্ধে অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করে ইন্টারনেট বিশ্বে আধিপত্য বিস্তারের অভিযোগ এনেছে ইউরোপীয় কমিশন (ইসি)। ইইউর অ্যান্টি-ট্রাস্ট কমিশনের অভিযোগ অনুযায়ী, এ মার্কিন টেক জায়ান্ট ব্যবসার পরিসর বাড়াতে নীতিমালা লঙ্ঘন করেছে। অন্যদিকে আরেক ওয়েব ট্র্যাকার স্ট্যাটকাউন্টারের তথ্য অনুযায়ী, মার্চে ডেস্কটপ ব্রাউজার হিসেবে জনপ্রিয়তার শীর্ষে ছিল ক্রোম। ওই সময় এর দখলে ছিল ৬০ দশমিক ১ শতাংশ বাজার। যুক্তরাষ্ট্র সরকারের ডিজিটাল অ্যানালাইটিকস প্রোগ্রামও (ডিএপি) ক্রোমের জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। ২০০৮ সালে অফিশিয়াল বেটা সংস্করণ চালু করে ক্রোম।

ডিএপির তথ্য অনুযায়ী, ৪৩ দশমিক ৩ শতাংশ বাজার দখলে নিয়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছে ক্রোম। ইন্টারনেট এক্সপ্লোরারের দখলে রয়েছে মাত্র ১৯ দশমিক ৪ শতাংশ।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিজ্ঞান প্রযুক্তি এর অারো খবর