গৃহস্থালি-যানবাহনে গ্যাসের দাম বাড়ানোর ইঙ্গিত
গৃহস্থালি-যানবাহনে গ্যাসের দাম বাড়ানোর ইঙ্গিত
২০১৬-০৪-২৯ ০৩:৫৭:৫২
প্রিন্টঅ-অ+


গৃহস্থালি ও যানবাহনে ব্যবহূত গ্যাসের দাম আবার বাড়বে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব নাজিমউদ্দিন চৌধুরী। দাম বৃদ্ধির প্রক্রিয়া চলছে বলে গতকাল সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত বাণিজ্য সহায়ক পরামর্শক কমিটির সভায় জানান তিনি।

গৃহস্থালি ও যানবাহনে গ্যাসের দাম বৃদ্ধির যৌক্তিকতা তুলে ধরে নাজিমউদ্দিন চৌধুরী বলেন, দেশে উৎপাদিত গ্যাসের ২০ শতাংশ ব্যবহার হয় রান্নার কাজে ও যানবাহনে। এ থেকে সরকার পায় বছরে ১ হাজার ৩০ কোটি টাকা। অথচ একই পরিমাণ গ্যাস শিল্প খাতে ব্যবহার হলে ৮০ হাজার কোটি টাকার সুবিধা পাওয়া যেত। তবে সার কারখানা ও বিদ্যুেকন্দ্রে ব্যবহূত গ্যাসের দাম বাড়ানোর আপাতত কোনো পরিকল্পনা নেই।

২০১৫ সালের ১ সেপ্টেম্বর গৃহস্থালিতে এক বার্নারের চুলার ক্ষেত্রে গ্যাসের দাম ৪০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৬০০ টাকা করা হয়। দুই বার্নারের চুলা ব্যবহারের ক্ষেত্রে ৪৫০ থেকে বাড়িয়ে করা হয় ৬৫০ টাকা। একই সময় কমপ্রেসড ন্যাচারাল গ্যাসের (সিএনজি) দাম প্রতি ইউনিট ৩০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৩৫ টাকা করা হয়।

সচিব বলেন, এ দুই প্রকার গ্যাস ব্যবহারে জনগণকে আমরা নিরুত্সাহিত করতে চাই। তাই এ দুই প্রকার গ্যাসের দাম বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে বাসাবাড়িতে পাইপলাইনে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দেয়ার পরিকল্পনাও আছে। এলপি (তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম) গ্যাস আমদানি করে বাসাবাড়িতে ব্যবহারে জনগণকে উত্সাহিত করা হবে।

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। অর্থ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মাহবুব আহমেদ, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেদায়েত উল্লাহ আল মামুন ও বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বদেশ এর অারো খবর