ক্যাডার-নন-ক্যাডার সব প্রথম শ্রেণির চাকরি শুরু হবে নবম গ্রেডে
ক্যাডার-নন-ক্যাডার সব প্রথম শ্রেণির চাকরি শুরু হবে নবম গ্রেডে
২০১৬-০৪-২৫ ০০:১৬:৪৬
প্রিন্টঅ-অ+


এখন থেকে প্রথম শ্রেণির ক্যাডার ও নন-ক্যাডার সব কর্মকর্তা চাকরির শুরুতে নবম গ্রেডে বেতন পাবেন। এই সংক্রান্ত গেজেট প্রকাশিত হয়েছে রবিবার (২০ এপ্রিল)। গেজেটে বলা হয়েছে, বিসিএস ক্যাডারভুক্ত এবং ৯ম গ্রেডে সরাসরি নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মচারীগণের বেতন জাতীয় স্কেল ২০১৫-এর ৯ম গ্রেডে একটি অতিরিক্ত অগ্রিম বেতন বৃদ্ধির সুবিধাসহ নির্ধারিত হবে; অর্থাৎ তাঁদের নির্ধারিত প্রারম্ভিক বেতন হবে ২২,০০০+১১০০=২৩১০০ টাকা’ এবং পদোন্নতির মাধ্যমে ৯ম গ্রেডপ্রাপ্ত কর্মচারীগণের বেতন জাতীয় স্কেল ২০১৫-এর ৯ম গ্রেডে নির্ধারিত হবে; অর্থাৎ তাঁদের নির্ধারিত প্রারম্ভিক বেতন হবে ২২,০০০ টাকা। এই আদেশ ১ জুলাই ২০১৫ তারিখ থেকে কার্যকর হয়েছে বলে গেজেটে উল্লেখ করা হয়েছে।

এই গেজেট প্রকাশের মাধ্যমে অষ্টম বেতন কাঠামোয় প্রথম শ্রেণির ক্যাডার কর্মকর্তাদের চাকরি শুরুর বেতন স্কেল এক গ্রেড নামিয়ে এনেছে সরকার। ফলে প্রথম শ্রেণির ক্যাডার ও নন-ক্যাডার সব কর্মকর্তা চাকরির শুরুতে নবম গ্রেডে বেতন পাবেন। তবে ক্যাডার কর্মকর্তা ও বিভিন্ন সংস্থায় সরাসরি নিয়োগপ্রাপ্ত প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তাদের একটি করে ইনক্রিমেন্ট দিয়ে বেতন নির্ধারণ করা হবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, অষ্টম ও নবম গ্রেড নিয়ে একটা সমস্যা ছিল। কেননা এখন একই সঙ্গে গ্রেডের কিছু পরিবর্তন করেছি। ফিক্সেশন অব সেলারিতে গিয়ে ডিসক্রিপেন্স হচ্ছিল। এই দুটা আমরা সমাধান করে দিয়েছি।

অর্থ সচিব বলেন, প্রথম শ্রেণির চাকরি শুরুর পদটি হবে নবম গ্রেড। কারও কারও পদ নতুন পে-স্কেলে অষ্টম গ্রেডে এবং কারও কারও নবম গ্রেডে হয়েছিল। এতে জটিলতা দেখা দিয়েছিল। এখন ক্যাডার কর্মকর্তা এবং প্রথম শ্রেণিতে সরাসরি নিয়োগপ্রাপ্ত সবাই নবম গ্রেডে হবেন। তবে এসব কর্মকর্তাদের একটি বার্ষিক প্রবৃদ্ধি (ইনক্রিমেন্ট) দিয়ে বেতন নির্ধারণ করা হবে।

অষ্টম বেতন কাঠামোয় প্রথম শ্রেণির নন-ক্যাডার কর্মকর্তাদের প্রবেশ পদের বেতন নবম গ্রেডে বেতন ধরা হলেও ক্যাডার কর্মকর্তাদের বেতন ধরা হয় অষ্টম গ্রেডে। সপ্তম বেতন কাঠামোতে প্রথম শ্রেণির ক্যাডার ও নন-ক্যাডার উভয় কর্মকর্তারাই চাকরিতে প্রবেশের সময় নবম গ্রেডে বেতন পেতেন। এ নিয়ে প্রথম শ্রেণির নন-ক্যাডার কর্মকর্তারা দীর্ঘদিন থেকেই আন্দোলন করে আসছিলেন। দাবি আদায়ে কর্মবিরতিও পালন করেন তারা। সরকারের আশ্বাসে কর্মসূচি স্থগিত ছিল।

প্রকৃচি, বিসিএস এবং ২৬ ক্যাডারের দীর্ঘদিনের আন্দোলনের একটা সুফল পাওয়া যাওয়ায় আন্দোলনকারীদের মধ্যে উদ্দীপনা লক্ষ্য করা গেছে। এই সাফল্যের পেছনে অবদান রাখায় দি ইঞ্জিনিয়ার্স এবং নন-ক্যাডার প্রকৌশলীদের পক্ষ থেকে প্রকৌশলী মোঃ মামুনুর রশীদ, প্রকৌশলীআমিনুর রশীদ মাসুদ, প্রকৌশলী আতাউল মাহমুদ, প্রকৌশলী এস. এম. মঞ্জুরুল হক মঞ্জুসহ সকল নেতৃবৃন্দের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানো হয়েছে।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিশেষ প্রতিবেদন এর অারো খবর