ভারতকে উড়িয়ে ফাইনালে ক্যারিবীয়রা
ভারতকে উড়িয়ে ফাইনালে ক্যারিবীয়রা
২০১৬-০৪-০১ ০৯:৫৫:০৮
প্রিন্টঅ-অ+


ইংল্যান্ডের পর চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল নিশ্চিত করলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ। স্বাগতিক ভারতের বিপক্ষে ৭ উইকেটের বিশাল জয় তুলে নিয়েছে ক্যারিবীয়রা।

০৩ এপ্রিল কলকাতায় ফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে ড্যারেন স্যামির ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এদিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের নারী দলও ফাইনালে উঠেছে। ফাইনালে ক্যারিবীয় নারীরা খেলবে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে।

বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের মুখোমুখি হয় টিম ইন্ডিয়া। মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ক্যারিবীয় অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি।

মাত্র দুই উইকেট হারিয়ে ১৯২ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ দাঁড় করায় স্বাগতিকরা। টপঅর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানই দুর্দান্ত ব্যাটিং করেন। কোহলি ৪৭ বলে ৮৯ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন। জবাবে, লেন্ডল সিমন্স, জনসন চার্লস আর আন্দ্রে রাসেলের দুর্দান্ত ব্যাটিং ঝড়ে ২ বল হাতে রেখেই ৭ উইকেটের জয় তুলে নেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

ভারতের হয়ে ব্যাটিং উদ্বোধন করেন দুই ওপেনার আজিঙ্কা রাহানে ও রোহিত শর্মা। ইনিংসের অষ্টম ওভারে বিদায় নেন ব্যাটে ঝড় তোলা রোহিত শর্মা। স্যামুয়েল বদ্রির বলে এলবির ফাঁদে পড়েন ৩১ বলে ৪৩ রান করা রোহিত। তার ইনিংসে ছিল তিনটি চার আর তিনটি ছক্কার মার।

প্রথম ৩৫ বলে দলীয় অর্ধশতক আসে ভারতের। পাওয়ার প্লে’র ছয় ওভারে টিম ইন্ডিয়া কোনো উইকেট না হারিয়ে তোলে ৫৫ রান। আর এক উইকেট হারিয়ে ৭৬ বলে আসে তাদের দলীয় শতক।

দলীয় ৬২ রানের মাথায় ওপেনার রোহিত শর্মা ফিরে গেলে উইকেটে জুটি বাঁধেন আজিঙ্কা রাহানে আর বিরাট কোহলি। স্কোরবোর্ডে এই দুই ব্যাটসম্যান আরও ৬৬ রান যোগ করেন। ইনিংসের ১৬তম ওভারে রাহানে বিদায় নেন। ৩৫ বলে দুটি চারের সাহায্যে ৪০ রান করেন তিনি। আন্দ্রে রাসেলের বলে বাউন্ডারি সীমানায় ব্রাভোর হাতে ধরা পড়েন রাহানে।

কোহলি ৩৩ বলে নিজের অর্ধশতকের দেখা পান। ১৬তম অর্ধশতক হাঁকিয়ে টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ হাফসেঞ্চুরির মালিক হন তিনি। এর আগে ১৫টি করে অর্ধশতক হাঁকিয়েছিলেন ব্রেন্ডন ম্যাককালাম এবং ক্রিস গেইল। ইনফর্ম কোহলি ৪৭ বলে ১১টি চার আর একটি ছক্কায় করেন ৮৯ রান। ধোনি ৯ বলে ১৫ রান করে অপরাজিত থাকেন।

মাত্র ২৭ বলে কোহলি আর ধোনি ৬৪ রানের জুটি গড়ে অবিচ্ছিন্ন থাকেন।

ভারতের ছুঁড়ে দেয়া ১৯৩ রানের চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য তাড়া করতে দলের হয়ে ব্যাটিং উদ্বোধন করতে নামেন ক্যারিবীয় ব্যাটিং দানব ক্রিস গেইল এবং জনসন চার্লস। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে বিদায় নেন গেইল। জাসপ্রিত বুমরাহর বলে বোল্ড হওয়ার আগে তিনি ৬ বলে করেন ৫ রান।

ইনিংসের তৃতীয় ওভারের শেষ বলে আশিষ নেহারা ফিরিয়ে দেন মারলন স্যামুয়েলসকে। রাহানের তালুবন্দি হওয়ার আগে তিনি করেন ৮ রান।

পাওয়ার প্লে’র ছয় ওভারে ওয়েস্ট ইন্ডিজ তুলে নেয় ৪৪ রান। আর ৪১ বলে দলীয় অর্ধশতকের দেখা পায় তারা। ৬৯ বলে দলীয় শতকের ঘরে পৌঁছে ক্যারিবীয়রা।

দলীয় ৬ রানের মাথায় বিদায় নেন ক্রিস গেইল। আর ১৯ রানের মাথায় সাজঘরে ফেরেন স্যামুয়েলস। এরপর জুটি বাঁধেন লেন্ডল সিমন্স এবং জনসন চার্লস। ৩০ বলে অর্ধশতকের দেখা পান জনসন চার্লস। ৬৭ বলে ৯৭ রান যোগ করেন সিমন্স এবং জনসন চার্লস।

ইনিংসের ১৪তম ওভারে কোহলির হাতে বল তুলে দেন ধোনি। প্রথম বলেই কোহলি ফিরিয়ে দেন সেট ব্যাটসম্যান জনসন চার্লসকে। রোহিত শর্মার তালুবন্দি হওয়ার আগে ক্যারিবীয় এই ওপেনার করেন ৩৬ বলে ৫২ রান। তার ইনিংসে ছিল ৭টি চার আর দুটি ছক্কা।

৩৫ বলে অর্ধশতকের দেখা পান সিমন্স। ৫১ বলে ৭টি চার আর ৫টি ছক্কায় ৮৩ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি। আর ২০ বলে ব্যাটে ঝড় তুলে তিনটি চার আর ৪টি ছক্কায় ৪৩ রান করে অপরাজিত থাকেন আন্দ্রে রাসেল। এ দুই ব্যাটসম্যান ৩৯ বলে ৮০ রান যোগ করে অবিচ্ছিন্ন থাকেন।

এর আগে প্রথম সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে ইডেন গার্ডেন্সের টিকিট হাতে পায় ইংলিশরা। কিউইদের করা ৮ উইকেটে ১৫৩ রানের জবাবে ৭ উইকেট হাতে রেখে আর ১৭ বল বাকি থাকতেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় ইয়ন মরগান বাহিনী।

টুর্নামেন্টের শুরু থেকে একাদশে পরিবর্তন না করা ভারত সেমিফাইনালের ম্যাচে শিখর ধাওয়ানকে বসিয়ে একাদশে রাখে আজিঙ্কা রাহানেকে। ইনজুরির কারণে যুবরাজ সিং ছিটকে পড়ায় দলে আসেন মনিশ পান্ডে। অপরদিকে এভিন লুইস আর ইনজুরিতে পড়া আন্দ্রে ফ্লেচারের বদলি হিসেবে ক্যারিবীয় দলে আসেন ক্রিস গেইল আর লেন্ডল সিমন্স।

ভারত একাদশ: রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলি, সুরেশ রায়না, মনিশ পান্ডে, অাজিঙ্কা রাহানে, মহেন্দ্র সিং ধোনি (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), হার্দিক পান্ডে, রবিন্দ্র জাদেজা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, জাসপ্রিত বুমরাহ ও আশিষ নেহরা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ একাদশ: ক্রিস গেইল, জনসন চার্লস, লেন্ডল সিমন্স, মারলন স্যামুয়েলস, দিনেশ রামদিন (উইকেটরক্ষক), ডোয়াইন ব্রাভো, আন্দ্রে রাসেল, ড্যারেন স্যামি (অধিনায়ক), কার্লোস ব্রাথওয়েট, সুলেমান বেন ও স্যামুয়েল বদ্রি।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

ক্রীড়া এর অারো খবর