ড্রোনের সাহায্যে শহুরে এলাকায় পণ্য পরিবহন শুরু
ড্রোনের সাহায্যে শহুরে এলাকায় পণ্য পরিবহন শুরু
২০১৬-০৩-২৯ ০১:২৯:৪৩
প্রিন্টঅ-অ+


ড্রোনের সাহায্যে শহুরে এলাকায় পণ্য পরিবহনে সফল হয়েছে একটি ড্রোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান। মার্কিন ইতিহাসে এটাই প্রথম।

এই প্রকল্পের পরিচালনায় ছিলো রিনোভিত্তিক ড্রোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ফ্লার্টি। প্রতিষ্ঠানটি জানায়, ছয় রোটরবিশিষ্ট এই ড্রোনটি ১০ মার্চ যুক্তরাষ্ট্রের নেভাডা অঙ্গরাজ্যের হাওথ্রন এলাকায় একটি জনশূন্য বাড়ির সামনে পানির বোতল, খাবার ও ফার্স্ট এইড কিট-এর একটি প্যাকেজ নামিয়ে দিয়ে যায় বলে জানিয়েছে স্কাই নিউজ।

ড্রোনটি জিপিএস-নির্ধারিত পথে আধা মাইল পাড়ি দিয়ে গন্তব্যে পৌঁছে। এ সময় নিরাপত্তা ঝুঁকির জন্য একজন পাইলট প্রস্তুত থাকলেও তার দরকার হয়নি বলে জানান প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী ম্যাট সুইনি।

সুইনি আরও জানান, এতেই প্রমাণিত হয় যে ড্রোন বিদ্যুতের তার, বাড়ির ছাদ এবং স্ট্রিট ল্যাম্পের মতো শহুরে বাধাগুলো এড়িয়ে পণ্য পরিবহনে সক্ষম। এ ছাড়াও এই অর্জন “আমাদের সেই দিনটির কাছে নিয়ে যাচ্ছে, যখন ড্রোন নিয়মিতভাবে আমাদের ঘরের দোড়গোড়ায় পণ্য পৌঁছে দিয়ে যাবে” বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ড্রোন পরীক্ষার জন্য ফেডারেল এভিয়েশন অ্যাডমিনস্ট্রেশন (এফএএ)-এর নির্ধারিত ছয়টি অঙ্গরাজ্যের মধ্যে নেভাডা একটি। নেভাডার গভর্নর ‘দেশে প্রথমবারের মতো শহরের মধ্যে সম্পূর্ণ স্বয়ংক্রিয়ভাবে পণ্য পৌছে দিতে সফল হওয়ায়’ প্রতিষ্ঠানটিকে অভিনন্দন জানান।

এর আগে, ২০১৫ সালের জুলাইয়ে ফ্লার্টি ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের একটি ক্লিনিকে চিকিৎসা পণ্য পৌঁছে দেওয়ার মাধ্যমে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রথমবারের মতো সফলভাবে গ্রামাঞ্চলে পণ্য পরিবহন করে।

এ ছাড়াও অনলাইনভিত্তিক খুচরা বিক্রেতা অ্যামাজন ড্রোনের মাধ্যমে কানাডা ও নেদারল্যান্ডসসহ অন্যান্য দেশে পণ্য পৌঁছে দেওয়ার ব্যাপারে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাচ্ছে।

নাসা বর্তমানে ড্রোনের মধ্যে সংঘর্ষ ঠেকাতে কম উচ্চতায় আকাশপথ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা নিয়ে ড্রোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো এবং এফএএ-এর সঙ্গে কাজ করছে।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিজ্ঞান প্রযুক্তি এর অারো খবর