আইএস কৌশল বদলেছে, হিমশিম খাচ্ছে পুলিশ
আইএস কৌশল বদলেছে, হিমশিম খাচ্ছে পুলিশ
২০১৬-০৩-২৮ ০৩:০৩:৩০
প্রিন্টঅ-অ+


সিএনএন জানিয়েছে, ইসলামিক স্টেইট (আইসিস) সন্ত্রাসীরা মোবাইল ফোনে এনক্রিপটেড চ্যাটিং অ্যাপ টেলিগ্রাম ব্যবহারে সতর্কতা অবলম্বন করছে আর তাই লিশের পক্ষে এদের ট্র‍্যাক করা কঠিন হয়ে উঠছে।

আইসিস শুধু তাদের যোদ্ধা এবং সমর্থকদের সঙ্গে যোগাযোগ নিশ্চিত করতে এবং আন্ডারকভার পুলিশদের খুঁজে বের করতে নতুন অনেক পদক্ষেপ নিচ্ছে বলে জানায় প্রাইভেট ইন্টেলিজেন্স প্রতিষ্ঠান ফ্ল্যাশপয়েন্ট।

স্মার্টফোন অ্যাপ টেলিগ্রাম এনক্রিপশন ব্যবহার করে, যার কারণে গুপ্তচরদের পক্ষে একসঙ্গে সব তথ্যের খোঁজ পাওয়া সম্ভব হয় না। তাদের প্রতিটি কথোপকথনে আলাদাভাবে আড়ি পাততে হয়।

নিউ ইয়র্ক পুলিশ বিভাগ, নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ এবং সাংবাদিকদের সঙ্গে এক ফোন কলে ফ্ল্যাশপয়েন্ট জানায়, আইসিস তাদের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড সংক্রান্ত খবর প্রচারের জন্য টেলিগ্রাম-এর বৃহৎ পাবলিক চ্যানেলগুলোকে ব্যবহার করে, পুলিশের পক্ষে যেগুলোয় নজর রাখা সম্ভব। কিন্তু বোমা তৈরির কলাকৌশলের মতো সংবেদনশীল তথ্যের ক্ষেত্রে তারা ক্রমেই ইনভাইট-অনলি চ্যানেলে ছোট কথোপকথনের দিকে ঝুঁকছে।

ফ্ল্যাশপয়েন্ট-এর মধ্যপ্রাচ্য এবং উত্তর আফ্রিকা শাখার রিসার্চ অ্যান্ড অ্যানালিসিস বিভাগের পরিচালক লাউথ আলখৌরি বলেন, “এতে বোমা বানানোর পদ্ধতি, ধরা পড়া এড়ানো ও জিজ্ঞাসাবাদের মুখে করণীয় সহ খুঁটিনাটি যেকোন বিষয়ে বিস্তারিত থাকে। ভবনের সাইবার নিরাপত্তার খুঁটিনাটি থেকে শুরু করে কেমিক্যাল মিশ্রণ পর্যন্ত সবই আছে এতে।”
প্রতিষ্ঠানটি আরও জানায়, আইসিস ছোট প্রাইভেট চ্যানেলের মধ্যেই আমন্ত্রণ খুব ভাবে সীমাবদ্ধ রাখে। তারা এ কাজটি বার বার করতে থাকে, যার ফলে যোগাযোগের ক্ষেত্র ক্রমেই ছোট হয়ে আসতে থাকে। সম্ভাব্য সরকারি ইন্টেলিজেন্স এজেন্টদের ঠেকাতেই এ ব্যবস্থা। ফ্ল্যাশপয়েন্টের সন্ত্রাসবাদ পর্যালোচক অ্যালেক্স কাসিরার বলেন, “কেউ যদি কঠোর নিয়মকানুন যথাযথভাবে মেনে না চলে, তবে ব্ল্যাকলিস্টে তার জায়গা হয় এবং কোনোভাবেই এতে আর ফেরা সম্ভব নয়।”

‘গেন নক্স’ ছদ্মনামের একজন স্বাধীন আইসিস গবেষক জানান, কমপক্ষে একটি টেলিগ্রাম অ্যাকাউন্ট আইসিস-এর টাকার যোগান দেয়।

এটা স্পষ্ট যে টেলিগ্রাম সক্রিয়ভাবে আইসিস সম্পর্কিত চ্যানেলগুলো বন্ধ করে দিচ্ছে। পাবলিক চ্যানেলগুলো প্রায়ই বন্ধ করে দেওয়ার কারণে জিহাদীরা বারবার জায়গা পরিবর্তন করতে থাকে। কিন্তু টেলিগ্রাম খোলাই থাকে। এর প্রতিষ্ঠাতা রাশিয়ার মাইকেল জাকারবার্গ নামে পরিচিত পাভেল ডুরভ স্বাধীন বক্তব্যের জন্য সুরক্ষিত এলাকা রাখতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।

তবে এ ব্যাপারে মন্তব্যের জন্য টেলিগ্রামের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তারা তাৎক্ষনিকভাবে সাড়া দেয়নি।

ফ্ল্যাশপয়েন্ট আরো জানিয়েছে, আইসিস-এর বিরুদ্ধে যুদ্ধের এ অনলাইন প্রচারণা খুব কমই ফলপ্রসু হচ্ছে। উদাহরণস্বরূপ, টুইটার ২০১৫ সালের মাঝামাঝি থেকে টুইটার সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের হুমকি দেওয়া অথবা অভিযোগে ১ লাখ ২৫ হাজার অ্যাকাউন্ট জব্দ করেছে। কিন্তু তাতেও সন্ত্রাসীদের টুইটার ব্যবহার করা সামান্যতম কমেনি বলে জানান ফ্ল্যাশপয়েন্ট-এর প্রধান গবেষক ইভান কোলম্যান। তিনি বলেন, “প্রতিষ্ঠানটি যতই প্রচেষ্টা চালাক না কেনো, যতক্ষণ পর্যন্ত নতুন একটি অ্যাকাউন্ট খোলা এতো সহজ, ততক্ষণ এটি নিয়ন্ত্রণ করার কোনোই উপায় নেই।”

তবে টুইটার ব্যবহারকারীদের বেনামি অ্যাকাউন্ট বানানোর নীতি উঠিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে কোন পরিকল্পনার ইংগিত দেয়নি।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এক সন্ত্রাসবিরোধী কর্মকর্তা সিএনএন-কে জানান, এ ধরনের এনক্রিপ্টেড যোগাযোগ খুবই গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা সৃষ্টি করছে, এবং যুক্তরাষ্ট্রের গুপ্তচরদের এ বিষয়ে বিন্দুমাত্র ধারণাও নেই।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিদেশ এর অারো খবর