ই-বুক ষড়যন্ত্র মামলায় অ্যাপলের ৪৫ কোটি মার্কিন ডলার জরিমানা
ই-বুক ষড়যন্ত্র মামলায় অ্যাপলের ৪৫ কোটি মার্কিন ডলার জরিমানা
২০১৬-০৩-০৯ ১৩:৫৩:৪৫
প্রিন্টঅ-অ+


২০১৩ সাল থেকে চলে আসা ই-বুক ষড়যন্ত্র মামলায় মার্কিন টেক জায়ান্ট অ্যাপলের চ্যালেঞ্জ আবেদনের শুনানি নাকচ করে দিয়েছে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট। চলতি বছরের ৭ মার্চ সুপ্রিম কোর্ট এ সিদ্ধান্ত জানায়। তাই এবার অ্যাপলকে জরিমানা হিসেবে গুনতে হবে ৪৫ কোটি মার্কিন ডলার।


২০১৩ সালে পাঁচ প্রকাশক মিলে ষড়যন্ত্রের কারণে ই-বুকের দাম বেড়ে যায়। তাদের উদ্দেশ্য ছিল ই-বুকের বাজারে শীর্ষ বিক্রেতা মার্কিন ই-কমার্স জায়ান্ট অ্যামাজনকে হটানো। আর তখন ওই ষড়যন্ত্রে কেন্দ্রীয় চরিত্রে ছিল অ্যাপল। পরে তারা ব্যাপারটি আদালতে স্বীকারও করে। ২০১৪ সালের নভেম্বরে দেশটির ম্যানহাটন ডিসট্রিক্ট জাজ ডেনিশ কোট এই মামলার রায় দিয়ে স্বাক্ষর করেন বলে জানিয়েছে রয়টার্স

অভিযোগে প্রকাশ, সেই সময়ে নতুন ই-বুক প্রকাশক অ্যাপল, হ্যাচেট, হার্পার কলিন্স, সায়মন অ্যান্ড শুস্টার, পেঙ্গুইন এবং ম্যাকমিলান এই পাঁচ প্রকাশনা জায়ান্টকে নিয়ে কার্যত একটি প্রকাশক সিন্ডিকেট তৈরি করে যারা ঠিক করে ই-বুক এর দাম তারা বাড়িয়ে ধরবে এবং ব্যবসায়ীক কৌশল প্রয়োগ করে বাজার থেকে অ্যামাজনকে হটিয়ে দেবে। ওই সময়ে অ্যাপলের হয়ে পুরো বিষয়টির দেখভাল করতেন অ্যাপলের ইন্টারনেটভিত্তিক ব্যবসা এবং অ্যাপস্টোর-এর দায়িত্বপ্রাপ্ত সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট এডি কিউ।

মামলা চলাকালে এডি কিউকে একাধিকবার তলব করেছে আদালত।

ওই ষড়যন্ত্রের কারণে কিছু কিছু ই-বুকের দাম বেড়ে ১২.৯৯ মার্কিন ডলার অথবা ১৪.৯৯ ডলারে গিয়ে দাঁড়ায়। সে সময় অ্যামাজন সেগুলো বিক্রি করে আসছিল ৯.৯৯ ডলারে।

আদালতের ওই রায়কেই তখন চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানায় অ্যাপল। সে সময় জানানো হয়, মামলাটি পুনর্বিবেচনার অনুমতি দেওয়া হয়েছে তবে অ্যাপলকে ৫ কোটি ডলার নিষ্পত্তির খরচ এবং ২ কোটি ডলার ফি পরিশোধ করতে হবে। আর যদি মামলার রায় অ্যাপলের পক্ষে আসে সেক্ষেত্রে তখন কোনো জরিমানাই দিতে হত না। কিন্তু ওই চ্যালেঞ্জ নাকচ হওয়ায় এখন জরিমানার পুরো ৪০ কোটি ডলার আর তার সঙ্গে ৫ কোটি ডলার নিষ্পত্তির খরচ পরিশোধ করতে হবে প্রতিষ্ঠানটিকে।

এ ব্যাপারে মার্কিন বিচার বিভাগের অ্যান্টিট্রাস্ট বিভাগের প্রধান বিল বেয়ার বলেন, “প্রকাশকের সঙ্গে ই-বুকের দাম বাড়ানোর ষড়যন্ত্রে অ্যাপলের জড়িত থাকার মামলাটি একেবারে নিষ্পত্তি করা হয়েছে।”

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

ফিচার এর অারো খবর