৬ দফা দাবিতে সারাদেশে সরকারী কর্মকর্তা কর্মচারীদের প্রতিবাদ সমাবেশ
৬ দফা দাবিতে সারাদেশে সরকারী কর্মকর্তা কর্মচারীদের প্রতিবাদ সমাবেশ
২০১৫-১১-০৫ ১২:৫০:২৯
প্রিন্টঅ-অ+


প্রকৃচি-বিসিএস সমন্বয় কমিটি-র ধারাবাহিক আন্দোলনের অংশ হিসেবে আজ সারাদেশে প্রতিবাদ সমাবেশ পালিত হয়েছে। উপজেলা পরিষদের ক্ষমতায়নের নামে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠার সার্কুলার বাতিল, জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫র সিলেকসন গ্রেড ও টাইম স্কেল পুনর্বহাল করাসহ ৬ দফা দাবিতে এই প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।
দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে দি ইঞ্জিনিয়ার্স-এর প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর:

কেরানীগঞ্জ
কেরানীগঞ্জে আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে উপজেলা প্রকৌশলী শাজাহান আলী বলেন, ঠিক যে মুহূর্তে আমাদের অফিস করার কথা সে মুহূর্তে আমরা সমাবেশ করছি, আন্দোলন করছি। আর আমাদের এটা করার জন্য যারা বাধ্য করছে তারা যারা চায়না সরকার সফল হোক।
তিনি আরও বলেন, একজন ডাক্তার বা ইঞ্জিনিয়ার যদি তার দপ্তর চালাতে পারেন তাহলে সচিবালয় কেন চালাতে পারবেন না।
কোন বিশেষ ক্যাডারের আধিপত্য তারা মেনে নেবেন না উল্লেখ করে তিনি বলেন, জাতির জনক বলেছিলেন আমাদের কেউ দাবায় রাখতে পারবে না, আমরাও সেই সূর্যপুরুষের উত্তরসুরী তাই আমরা দাবী আদায়ের মধ্য দিয়ে দেখিয়ে দেব আমাদেরও কেউ দাবিয়ে রাখতে পারেবে না।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আব্দুর রশিদ সভাপতির বক্তব্যে বলেন, আমরা সরকারের সাথে আছি থাকবো। কিন্তু যতদিন এই আন্দোলন সফল না হবে ততদিন আমরা পিছু হটবো না। তিনি সকল কর্মকর্তাদের কেন্দ্রীয় নির্দেশ মেনে আন্দোলন কর্মসূচী চালিয়ে যাবার আহবান জানান।
উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা ফখরুল আশরাফ বলেন, যাদের হাত ধরে দেশ দ্রুত উন্নয়নের পথে এগোচ্ছে তাদের উপর খবরদারি করছে একটা বিশেষ ক্যাডার যাদের এ উন্নয়নে কোন অংশগ্রহন নেই। এই অবস্থা থেকে মুক্তি চেয়ে তিনি কেন্দ্রিয় নেত্রীবৃন্দের প্রতি কঠোর কর্মসূচি প্রদানের আহবান জানান।
উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মোঃ মনিরুজ্জামান বলেন, আমাদের ভেতরের দীর্ঘদিনের ক্ষোভ বের হয়ে এসেছে। এতদিন সচিবরা ব্রাহ্মণের মত আচরণ করে এসেছে আমাদের সাথে। সমস্ত প্রমোশন তাদের, ক্ষমতা তাদের আর আমাদের বেলায় শুধু অবহেলা। এবার সময় এসেছে সবাইকে একসাথে আন্দোলন করে সমস্ত অন্যায় আইন বাতিল করাতে হবে।
এ সমাবেশে প্রাথমিক শিক্ষকদের দ্বিতীয় শ্রেনীর গেজেটেড কর্মকর্তার পদমর্যাদা বাস্তবায়ন, বেতন স্কেলে দশম গ্রেড প্রদান, টাইমস্কেল ও সিলেকশন গ্রেড পুনর্বহাল, শতভাগ পদোন্নতি ও ইউএনওর অন্যায্য খবরদারি বাতিলের দাবিতে কেরানীগঞ্জ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতি একাত্মতা ঘোষণা করে।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আব্দুর রশিদের সভাপতিত্বে এ সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন ডাঃ মনসুর আহমেদ, কৃষিবিদ দিলরুবা শারমিন প্রমুখ।

সিলেট
সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এ প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

অধ্যাপক ড. মো. নেছাওর মিয়ার সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা বলেন, বর্তমান জনবান্ধব সরকার যখন বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গঠনের উদ্দেশে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তখন প্রশাসন ক্যাডারের কিছু কর্মকর্তা সেই প্রক্রিয়াকে বাধাগ্রস্ত করতে উঠে পড়ে লেগেছে।

তারা বর্তমান গণতান্ত্রিক সরকারের প্রতি জোর দাবি জানিয়ে বলেন, মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব থেকে শুরু করে সচিব/সিনিয়র সচিব পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট ক্যাডার থেকে পদায়নের মাধ্যমে কৃত্য পেশাভিত্তিক জনপ্রশাসন গড়ে তুলতে হবে। বেতন স্কেলে টাইম স্কেল ও সিলেকশন গ্রেড পুনর্বহাল করতে হবে। উপজেলায় ইউএনও এর একক কর্তৃত্ব বাতিলসহ আন্তঃক্যাডার বৈষম্য দূর করে সকল ক্যাডার ও ফাংশনাল সার্ভিসে পদোন্নতির সমান সুযোগ প্রদান করতে হবে।

সহকারী অধ্যাপক শাহ শহীদুল ইসলামের পরিচালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- প্রকৃচি-বিসিএস সমন্বয় কমিটি, সিলেট জেলা সভাপতি ও জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. নূরুল ইসলাম, কমিটির সাধারণ সম্পাদক স্বাচীপ নেতা মো. আজিজুর রহমান রোমান, প্রকৃচি-বিসিএস সিলেট বিভাগীয় সমন্বয় কমিটির ডা. আবু সাইদ আবদুল্লাহ মুকুল, মো. নজরুল ইসলাম বিসিএস (শিক্ষা) এমসি কলেজ, ডা. সুব্রত রায়, ফকরুল আলম, বিসিএস (তথ্য) বাসনা আক্তার, বিসিএস (প্রাণিসম্পদ), মাজহারুল ইসলাম, বিসিএস (শিক্ষা), ইসলাম উদ্দিন, বিসিএস (শিক্ষা), সিলেট জেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি নাদিরা সুলতানা প্রমুখ।

সুনামগঞ্জ
২টায় দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চত্বরে উপজেলা কৃষি অফিসার এম এম ইলিয়াছ’র সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজেলা প্রকৌশলী আলাউদ্দিন খান, উপজেলা পঃপঃ কর্মকর্তা চৌধুরী মোহাম্মদ রাজিব মোস্তফা, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্লাবন পাল, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার পরিমল চন্দ্র সিনহা, সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুল বারেক, উপজেলা মৎস্য অফিসার সীমা রাণী বিশ্বাস, পূর্ব পাগলা ইউনিয়ন মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের মেডিকেল অফিসার ডাঃ তারেক নুরুল ইসলাম, পশ্চিম পাগলা ইউনিয়ন মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের মেডিকেল অফিসার কান্তা চক্রবর্তী সহ প্রমূখ।

শেরপুর
বৃহস্পতিবার দুপুরে শেরপুর সরকারি কলেজ মিলনায়তনে এ প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন প্রকৃচি-বিসিএস সমন্বয় কমিটির সহসভাপতি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক ড. মো. আব্দুস সালাম। এতে অন্যান্যের মধ্যে জেলা স্বাচিপ সভাপতি ডা. আব্দুল বারেক তোতা, সওজ নির্বাহী প্রকৌশলী সুপ্তা চাকমা, জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. আব্দুল মান্নান প্রমুখ বক্তব্য দেন।

খাগড়াছড়ি
দুপুরে শহরের টাউন হলে প্রকৃচি-বিসিএস (২৬ ক্যাডার, ননক্যাডার ও ফাংশনাল সার্ভিস) সমন্বয় কমিটি খাগাছড়ি জেলা শাখার উদ্যোগে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- খাগড়াছড়ি সড়ক ও জনপদ বিভাগের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী এ এস এম ফারুক হোসেন, খাগড়াছড়ির সিভিল সার্জন ডা. নিশিত নন্দী মজুমদার, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক যুগল পদ দে, জেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ড. শেখ আব্দুল হান্নান, খাগড়াছড়ি সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ শাহ আলমগীর প্রমুখ।

লক্ষীছড়ি
বৃহস্পতিবার উপজেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে প্রতিবাদ সমাবেশে ২য় ও ৩য় শ্রেণীর কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা অংশগ্রহণ করেন।
সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. মাঈনুল ইসলাম চৌধুরী, কৃষি কর্মকর্তা মো. সফিকুল ইসলাম ভূইয়া, মেডিকেল অফিসার ডা. ওমর ফারুক, পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. সফিউল আলম প্রমুখ।
বক্তরা বলেন, আমরা কেউই সরকারের বাহিরে নই, এ সমাবেশ সরকারের বিরুদ্ধেও নয়। কিন্তু আমাদের প্রতি যে অবিচার করা হচ্ছে এটি তারই প্রতিবাদ মাত্র।

বাগেরহাট
বৃহস্পতিবার দুপুরে বাগেরহাট শহীদ মিনার পাদদেশে এই প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করা হয়। এর আগে মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট মীর শওকাত আলী বাদশা এমপির কাছে স্বারকলিপি প্রদান করেন।
প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য দেন বাগেরহাট জেলা বিসিএস সমন্বয় কমিটির সভাপতি বাগেরহাট সিভিল সার্জন ডা. অরুন চন্দ্র মন্ডল, সহ সভাপতি জেলা মৎস্য কর্মকর্তা নারায়ন চন্দ্র মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক সমন্বিত কৃষি উন্নয়ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক জি এম রুহুল আমিন, সহ-সাধারণ সম্পাদক জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. সুখেন্দু শেখর গায়েন, সাংগঠনিক সম্পাদক পিসি কলেজের সহকারী অধ্যাপক আলিমুজ্জামান, কোষাধ্যক্ষ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মনোজিত কুমার মল্লিক প্রমুখ।

মংলা
বৃহস্পতিবার সকাল সাডে় ১১ টায় উপজেলা পরিষদ চত্বরে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ নজরুল ইসলাম। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ দেব, উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন, উপজেলা মেডিকেল অফিসার ডাঃ আসাদুল্লাহ গালিব, উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার, উপজেলা উপ-সহকারি জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী এস এম কাযে়স।
সমাবেশের আগে একটি প্রতিবাদ মিছিল মংলা শহর প্রদক্ষিণ করে উপজেলা পরিষদ চত্বরে এসে শেষ হয়। মিছিল ও সমাবেশে বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ্ও অংশগ্রহন করেন।

সিরাজগঞ্জ
বৃহস্পতিবার দুপুরে বাজার স্টেশন স্বাধীনতা স্কয়ারে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ওমর আলীর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন,সিরাজগঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ প্রকৃচির জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক এস.এম.মনোয়ার হোসেন, বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এস.এম.রেজাউল করিম, সওজ নির্বাহী প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ, মৎস্য কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম, বিটিসিএল’র বিভাগীয় প্রকৌশলী কামরুল ইসলাম, বিএমএ সভাপতি ডাঃ জহুরুল হক রাজা, সদর উপজেলা মেডিকেল অফিসার ডাঃ নিহার রঞ্জন দাস (রোগ নিয়ন্ত্রন), জেলা তথ্য অফিসার রেজাউল করিম, সিদ্দীকি প্রমুখ।

কিশোরগঞ্জ
বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় সরকারি গুলূদয়াল কলেজ চত্বরে এ কর্মসূচি পালিত হয়।
জেলা সমন্বয় কমিটি ও জেলা বিএমএ-এর সভাপতি ডাক্তার মাহবুব ইকবালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে কলেজের অধ্যক্ষ রামচন্দ্র রায়, সমন্বয় কমিটির সম্পাদক কৃষিবিদ শফিকুল ইসলামসহ বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী অংশ গ্রহণ করেন।
কর্মসূচি থেকে নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে দাবি মেনে নেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। অন্যথায় আরো কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে উল্লেখ করেন। এর আগে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।

বরিশাল
বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজের অডিটরিয়ামে সংগঠনের জেলা সভাপতি ডা. ইশতিয়াক হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. ভাস্কর সাহা, বিএম কলেজের অধ্যক্ষ স.ম. ইনামুল হাকিম, শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হকসহ শীর্ষ সরকারী কর্মকর্তারা।

মাগুরা
দুপুরে মাগুরা সদর হাসপাতাল সম্মেলন কক্ষে সিভিল সার্জন ডাঃ এফবিএম আব্দুল লতিফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, সমন্বয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আবু সাঈদ খান, সদর উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ডাঃ শেখ মন্জুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ সুব্রত কুমার চক্রবর্তী, সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ জুলি চৌধুরী, কর্মচারী পরিষদের সভাপতি কাউসার আলী, শেখ মেজফার রহমান প্রমুখ।

নাগরপুর
দুপুরে উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে প্রতিবাদ সমাবেশে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও তাঁর কার্যালয়ের কর্মচারী ছাড়া প্রায় সকল দফতরের কর্মকর্তা /কর্মচারীগণ এ প্রতিবাদ সমাবেশে অংশ নেয়।
উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ হাবিবুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার মোঃ মাহাবুব আলম খান, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ মতিউর রহমান খান, মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ হাবিবুর রহমান, ডাঃ মোঃ জাহিদুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারণ সহকারী কর্মকর্তা মোঃ আইয়ুব আলী খান প্রমুখ।

কাহারোল
দিনাজপুরের কাহারোল উপজেলা শাখা হস্তান্তরিক ১৬টি দপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারী বৃন্দের আয়োজনে বৃহস্পতিবার (৫ নভেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২ টায় এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।।

চুয়াডাঙ্গা
বেলা ১২টায় চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ প্রাঙ্গণে দেড় ঘন্টাব্যাপী প্রতিবাদ সমাবেশে সংগঠনের আহবায়ক ডা. মার্টিন হীরক চৌধুরীর সভাপতিত্ব করেন। সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর কামরুজ্জামান।
স্বাগত বক্তব্য দেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক নির্মল কুমার দে। ৬ দফা দাবি আদায়ে আরো বক্তব্য দেন সিভিল সার্জন ডা. আজিজুল ইসলাম ও জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা শ্যামল কুমার পাল। দাবী আদায়ের জন্য অনুরূপ প্রতিবাদ সমাবেশ আলম-ডাঙ্গা, দামুড়হুদা ও জীবননগর উপজেলায় অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ঘাটাইল
বিসিএস সমন্বয় কমিটি (ক্যাডার), নন ক্যাডার, শিক্ষকবৃন্দ ও ফাংশনাল সার্ভিস সমন্বয় কমিটির সভাপতি ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার নারায়ন চন্দ্র সাহার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সমন্বয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা নূরে আলম সিদ্দিকী, মাধ্যমিক শিক্ষা াফিসার এ,কে,এম শামছুল হক ,সমাজ সেবা অফিসার মোঃ শাহজাহান আলী ,প্রাথমিক সরকারী শিক্ষক সমিতির সভাপতি মোঃ হুমায়ুন কবীর, প্রধান শিক্ষক মোঃ ইমরান হোসেন প্রমুখ।

মির্জাপুরে
বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা থেকে ৩টা পর্যন্ত এক ঘন্টা উপজেলা পরিষদ চত্তরে এ প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন উপজেলায় বিভিন্ন অধিদপ্তরে কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।
প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজেলা কৃষি অফিসার মোহাম্মদ আরিফুর রহমান,পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোঃ শহিদুল ইসলাম, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ আকতারুজ্জামান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তৌফিকুর রহমান, উপজেলা সিনিয়র মৎস কর্মকর্তা মোঃ আহসান হাবিব, সমবায় কর্মকর্তা আমিনা পারভীন, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ খলিলুর রহমান, উপজেলা প্রকৌশলী খন্দকার মাহবুব আশরাফ ও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মিনু পারভীন প্রমুখ।

সৈয়দপুর
বেলা ৩ টা সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদ চত্বরে ওই সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

প্রকৃচি- বিসিএস ক্যাডার সমন্বয় কমিটির সৈয়দপুর ইউনিটের সভাপতি সৈয়দপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. সুলতান মাহবুব প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন।

এতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, প্রকৃচি-বিসিএস ক্যাডার সমন্বয় কমিটির সৈয়দপুর ইউনিটের সহ-সভাপতি সৈয়দপুর উপজেলা প্রাণি সম্পদ

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বদেশ এর অারো খবর