এখন ভারতীয়রাও প্রযুক্তি-ধনীদের তালিকায়
এখন ভারতীয়রাও প্রযুক্তি-ধনীদের তালিকায়
২০১৬-০৩-০২ ০৩:০৮:৪২
প্রিন্টঅ-অ+


ফ্লিপকার্ট নামটা অনেকেই শুনে থাকবেন। হ্যাঁ ভারতের সবচেয়ে বড় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের ফ্লিপকার্ট। খবর হল শতকোটি-ডলার ক্লাবে জায়গা করে নিয়েছে এই প্রতিষ্ঠানটি।

চীনা গবেষণা সংস্থা হুরুন-এর করা বাৎসরিক সম্পদের প্রতিবেদনের এই তালিকায় প্রথমবারের মতো নাম লেখালেন প্রতিষ্ঠানটির দুই সহ-প্রতিষ্ঠাতা শচিন বানসাল আর বিন্নি বানসাল।

ব্যবসা-বাণিজ্যবিষয়ক মার্কিন দৈনিক ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল জানিয়েছে, বিশ্বের স্ব-প্রতিষ্ঠিত বিলিয়নেয়ারদের মধ্যে তারা ২১তম।

নয় বছর আগে প্রথমে বই বিক্রেতা হিসেবে যাত্রা শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি। পরবর্তীতে ইলেক্ট্রনিকস, খেলার সামগ্রী, পোশাক সামগ্রী, মোবাইল ফোনসহ সব কিছু বেচাকেনার অনলাইন বাজার প্রতিষ্ঠা করে তারা।

বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যাক্তিদের তালিকায় ভারত থেকে জায়গা করে নেওয়া নতুন নামের সংখ্যা ১২। এদের মধ্যে বিন্নি আছেন এই তালিকার ১৫১০তম আর শচিন আছেন ১৫৬৪তম স্থানে।

প্রথম বই বিক্রেতা হিসেবে যাত্রা শুরু করেছিল অ্যামাজনও, পরবর্তীতে তারাও অনলাইন ই-কমার্স ব্যবসা শুরু করে। মার্কিন এই প্রতিষ্ঠানটির প্রধান জেফ বেজোস এবার ভালোই উন্নতি করেছেন। আঠার নম্বর থেকে জেফ তার সম্পদ ৮৩ শতাংশ বাড়িয়ে এখন পাঁচ নম্বরে উঠে এসেছেন।

ফ্লিপকার্ট-এর ব্যবসা শুরু করার আগে অ্যামাজনেই কাজ করতেন এই দুই সহ-প্রতিষ্ঠাতা।

প্রতিবারের মতই এবারও বিশ্বসেরা ধনীদের তালিকায় প্রথম স্থান ধরে রেখেছেন মাইক্রসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস। আর সবচেয়ে বড় সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেইসবুকের প্রধান মার্ক জাকারবার্গ আছেন তালিকার চতুর্থ স্থানে।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিদেশ এর অারো খবর