ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের পরিধি বাড়ছে
ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের পরিধি বাড়ছে
২০১৬-০৩-০২ ০১:৪৩:৪২
প্রিন্টঅ-অ+


পরিধি বাড়ছে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের। সিটি করপোরেশনের আওতায় আনা হচ্ছে রাজধানীর পার্শ্ববর্তী ১৬টি ইউনিয়নকে। আটটি ইউনিয়ন অন্তর্ভুক্ত হচ্ছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে আটটি দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে। সব ঠিক থাকলে আগামী এপ্রিলের মধ্যেই ১৬ ইউনিয়ন সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত হবে।

স্থানীয় সরকার বিভাগ ইতিমধ্যে তৈরি করেছে এ-সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব। শিগগিরই এটি উপস্থাপন করা হবে সিটি করপোরেশন সীমানা-সংক্রান্ত সচিব কমিটির বৈঠকে। পরে এটি চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য যাবে প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস-সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটিতে (নিকার)।

সূত্র জানায়, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের আওতায় আসবে বেরাইদ, বাড্ডা, ভাটারা, সাঁতারকুল, হরিরামপুর, উত্তরখান, দক্ষিণখান ও ডুমনী ইউনিয়নের সব মৌজা। এ ছাড়া চাকুলী, চকদ্বিগুণ ও শৈলপুর মৌজার ক্যান্টনমেন্ট বোর্ড অধিকৃত ভূমি এবং এর আগে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত এলাকা ছাড়া এসব মৌজার অবশিষ্ট জমিও সংশ্লিষ্ট সিটি করপোরেশনের আওতায় আসবে। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের আওতায় আসবে শ্যামপুর, মাতুয়াইল, ডেমরা, দনিয়া, সারুলিয়া, দক্ষিণগাঁও, নাসিরাবাদ ও মাণ্ডা ইউনিয়নের সব মৌজা। ১৯৭৮ সালে ঢাকা সিটি করপোরেশন গঠিত হলেও এর আশপাশে থাকা ১৬টি ইউনিয়ন সিটি করপোরেশন কিংবা কোনো উপজেলার আওতায় না আনায় রয়ে যায় তেজগাঁও সার্কেলের অধীনে। এসব ইউনিয়নের জনগণের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে এগুলোকে সিটি করপোরেশনের অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব আবদুল মালেক বলেন, ওই এলাকাগুলোর কমপক্ষে ৭৫ শতাংশ লোক অকৃষিজীবী। এলাকাগুলোতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, শিল্পকারখানা গড়ে উঠেছে। এলাকাগুলোর মানুষও দীর্ঘদিন ধরে সিটি করপোরেশনের আওতায় আসতে চান। দীর্ঘদিন পরে হলেও তাদের দাবি পূরণ হতে যাচ্ছে।

সরকারের এ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. সাঈদ খোকন বলেন, সিটি করপোরেশনের আওতাভুক্ত হওয়ার পর তিনি ওই সব এলাকায় নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করবেন। এলাকার উন্নয়নে বিশেষ নজর দেবেন বলে জানান তিনি।
কিছু বিরোধিতা থাকলেও এসব ইউনিয়নের সিটি করপোরেশনের অধীনে এলে উন্নয়ন বৈষম্য কমবে। ইউনিয়নগুলো সিটি করপোরেশনভুক্ত হলে এসব এলাকার মানুষের জীবনযাত্রার মান আরও উন্নত হবে বলে মনে করেন বেশির ভাগ জনপ্রতিনিধি।

জানা গেছে, ইউনিয়নগুলো সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার পর সীমানা চিহ্নিত করবে স্থানীয় সরকার বিভাগ। ইউনিয়নগুলোকে বিলুপ্ত করে কয়েকটি ওয়ার্ড গঠন করা হবে। পরে নির্বাচন কমিশন সুবিধাজনক সময়ে নিয়ম অনুযায়ী নির্বাচনের ব্যবস্থা করবে। নির্বাচনের আগে সরকারি কর্মকর্তা দিয়েই চলবে এসব ওয়ার্ডের উন্নয়ন কাজ।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

স্বদেশ এর অারো খবর