প্রযুক্তির ভবিষ্যৎ অ্যাপলের হাতে যেসব কারণে
প্রযুক্তির ভবিষ্যৎ অ্যাপলের হাতে যেসব কারণে
২০১৬-০৩-০১ ০১:৪৮:২৬
প্রিন্টঅ-অ+


যে কারণে প্রযুক্তির ভবিষ্যৎ অ্যাপলের হাতে

অ্যাপলের প্রতিশ্রুতি ছিলো ইতিহাস বদলে দেবে আর সে প্রতিশ্রুতি তারা রেখেছেও। কাছাকাছি সময়েই বাজারে ছেড়েছে আইফোনের দু’টি মডেল ও অ্যাপল ওয়াচ। নতুন নতুন প্রযুক্তির ভিড়েও যা এনে দিয়েছে ভিন্ন আমেজ।

আইফোন-৬ বড় মনিটর নিয়ে বাজারে আসার পর স্যামসাং গ্যালাক্সি এস-ফাইভ আরও বড় মনিটর তৈরি করে ফেলে। তারপরই অ্যাপল নিয়ে এলো আইফোন সিক্স-প্লাস। যা শুধু মনিটরই নয় সব কিছুতেই বাজারে ৪টি সেরা ব্র্যান্ডের চেয়ে এগিয়ে গেলো।

সব প্রতিষ্ঠানকেই পণ্যের মুল্য নিয়ে মাথা ঘামাতে দেখা যায়। বাজারে টিকে থাকার জন্য যখন অন্য সব কোম্পানি দাম কমানোকেই ভরসা মনে করে তখন অ্যাপল ব্যস্ত আবিষ্কার নিয়ে। ঠিক একারণেই হয়তো স্টিভ জবসের গড়া এ প্রতিষ্ঠানটি এখনও দাপটের সঙ্গে টিকে আছে।

ভিডিওগ্রাফিতেও কম যায় না। প্রতি সেকেন্ডে ২৪০ ফ্রেম ভিডিও-ও করতে পারে। যা দুশ্চিন্তার কারণ ছোটখাট ভিডিও ক্যামেরা প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর।বাজার গবেষণায় দেখা গেছে, আইফোনের উন্নতমানের ক্যামেরার কারণে বিক্রি কমছে ডিএসএলআর-এরও।

মোবাইলফোনের সুবিধার বাইরেও অ্যাপল ওয়াচ দিচ্ছে হৃদস্পন্দন মনিটর, জাইরোস্কোপ কম্পাস। আছে গতিমাপক একসিলারোমিটারও। অর্থাৎ অ্যাপল মানুষের শরীর স্বাস্থ্য নিয়েও মাথা ঘামায়। কোনও দিক দিয়েই দুর্বলতা রাখতে রাজি নয় তারা।

চার্জিং জগতেও অ্যাপলের রাজত্ব। অ্যাপলের অনেক পণ্যে চার্জ দেওয়া যায় তারের সংযোগ ছাড়াই। এমনকি চার্জারের প্লাগটাকে ফোনের পাশে রেখেও চার্জ দেওয়া সম্ভব। ফোনের ভেতর থাকা যন্ত্রই টেনে নেবে বিদ্যুৎ।

এই সমস্ত কারণে স্মার্টফোন জগতে নতুন কী এলো তা দেখতে প্রযুক্তিপ্রেমীরা কিন্তু অ্যাপলের দিকেই তাকিয়ে থাকে। আর এ আকাঙ্ক্ষা যতদিন থাকবে, ততদিন অ্যাপলই দেখাবে ভবিষ্যৎ।


ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিজ্ঞান প্রযুক্তি এর অারো খবর