সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকায় টুইটার বন্ধ
সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকায় টুইটার বন্ধ
২০১৬-০২-২১ ১৩:৪২:৩১
প্রিন্টঅ-অ+


মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটার বন্ধ করে দিয়েছে লাখো অ্যাকাউন্ট। যে অ্যাকাউন্টগুলো বন্ধ করা হয়েছে তার সবগুলোই জড়িত ছিলো সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সাথে।

জর্জ ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি-এর এক গবেষণা প্রতিবেদনে, টুইটারের এ সিদ্ধান্তের কারণে চরমপন্থী গোষ্ঠী আইএস-এর বিস্তার ভালভাবেই বাধাগ্রস্থ হয়েছে। এবং অন্য ব্যবহারকারীদের কাছে ব্যপক আকারে তাদের বাণী পৌঁছানো প্রায় থেমে গেছে।

ওই প্রতিবেদনে জানা যায়, ইংরেজী ভাষা ব্যবহার করে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালানো হচ্ছে এমন অ্যাকাউন্ট শনাক্ত করেছে টুইটার। ইংরেজী ভাষা ব্যবহার করার কারণে ‘সহজেই শনাক্ত করা সম্ভব’ এসব সন্দেহজনক অ্যাকাউন্টের সংখ্যা কমে গিয়ে এখন প্রায় এক হাজারে এসে ঠেকেছে। আর এদের কার্যক্রম এখন মূলত নিজেদের মধ্যে মেসেজ আদান-প্রদান।

ওই অ্যাকাউন্টগুলো থেকে গত বছরের জুন থেকে অক্টোবরের মধ্যে প্রতিদিন গড়ে টুইটের সংখ্যা ১৪.৫ থেকে কমে ৫.৫ হয়েছে বলে জানিয়েছে স্কাইনিউজ। গড়ে এইসব অ্যাকাউন্টের অনুসারীর সংখ্যা ৩০০ থেকে ৪০০ এর মধ্যে।

ইসলামিক দেশগুলোতে টুইটার ব্যবহারের নীতি নির্ধারণের বিষয়ে খামখেয়ালীর জন্য এর আগে সমালোচিত হতে হয়েছে টুইটারকে।

নীতি নির্ধারণের ক্ষেত্রে টুইটার তার অন্যান্য প্রতিদ্বন্দ্বী তুলানায় পিছিয়ে আছে বলে সমালোচনা ছিল। প্রায় প্রতিটি সামাজিক নেটওয়ার্কই সন্ত্রাসী গোষ্ঠী বিষয়ে বিভিন্ন ঘোষণা দিয়েছে। তবে গত ছয় মাসে কেবল টুইটারই সোয়া লাখ চরমপন্থী অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার ঘোষণা দিতে পেরেছে।

ফ্রান্সের প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলার প্রেক্ষিতে এই গবেষণা চালানো হয় বলে জানিয়েছেন এই প্রতিবেদনকারীরা। ওই হামলার একটা বড় অংশ ফ্রান্স এবং আরব নেটওয়ার্কের এমন তথ্যও উঠে এসেছে এই গবেষণায়।

ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর প্রকাশিত প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, রেখাচিত্র, ভিডিও, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট অাইনে পু্র্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবেনা ।

মন্তব্য

মন্তব্যে প্রকাশিত মত মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু নিয়ে ইঞ্জিনিয়রবিডি ডটকম-এর কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো দায় নেবে না।

বিজ্ঞান প্রযুক্তি এর অারো খবর